"ছবিতে বাংলা বর্ণমালা" আমাদের অতি প্রিয়, পরিচিত বাংলা বর্ণগুলোকে নতুন করে দেখার চেষ্টা। ছবিগুলো অনুরূপ বর্ণ অবলম্বনে আঁকা, যেনো বর্ণগুলোকে আক্ষরিক অর্থেই ছবির মধ্যে দেখতে পাওয়া যায়। উদ্দেশ্য- visual learning দিয়ে ভাষা শিক্ষাকে আরো আনন্দময়, অর্থপূর্ণ, কার্যকর করে তোলা।

অনেকদিন ধরেই এর কাজ চলছিল। অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর, ছবিতে-আঁকা বর্ণমালা এখন পোস্টার আকারে পাওয়া যাচ্ছে (আপাতত, শুধুমাত্র নর্থ আমেরিকাতে)। দুই ফুট বাই তিন ফুট আকারের এই পোস্টার টা অর্ডার করতে পারেন এই লিংক থেকে। পোস্টার প্রিন্ট, শিপিং খরচ আর অন্যান্য আনুষঙ্গিকের পরে প্রতিটি অর্ডার থেকে বাতায়ন ফাউন্ডেশন ৫ ডলার ডোনেশন পাবে। এটা প্রথম ধাপ।  এই ছবিগুলোকে অন্যান্য প্লাটফর্ম (ই-বুক, মোবাইল অ্যাপ) ও বাংলাদেশের শিশুদের কাছে পৌঁছে দেবার জন্য ডোনেশনটুকু প্রয়োজন।

slide0.jpg

হাল-নাগাদ তথ্যের জন্য চোখ রাখুন আমাদের বাতায়ন ফাউন্ডেশন এর ফেইসবুক পেইজ এ। আপনাদের ফিডব্যাক ও আইডিয়া পোস্ট করুন, ফেইসবুক কিংবা টুইটারে ছড়িয়ে দিন এই উদ্যোগের কথা। 

BUY POSTER HERE!


সংক্ষেপে পেছনের গল্পঃ

পুরা ব্যাপারটার শুরু এক প্রবাসী বন্ধুর আক্ষেপ থেকেঃ “ইংলিশ এলফাবেট শিখানোর অনেক আকর্ষণীয় উপাদান আছে। কিন্ত,আমার ৩ বছরের ছেলেকে বাংলা শেখাতে জানটা পানি হয়ে গেল রে…”

পড়ার (reading) তুলনায়, আমাদের visual memory অনেকাংশে মনে রাখার জন্য শ্রেয়। আমরা যখন কোন কিছু দেখি, আমাদের মস্তিষ্ক pattern recognition এর মাধ্যমে তাকে মেমরি থেকে শনাক্ত করে। আঁকাআঁকিতে ওস্তাদ রুবাইয়াত একটা বুদ্ধি বের করল- বাংলা ভাষার বর্ণ গুলোকে যদি অনুরূপ শব্দের আদলে আঁকা যায়, সেটা হয়তো মনে রাখার জন্য সহজ।  তাছাড়া, সুন্দর ড্রয়িং আমাদের উদ্দীপিত করে, অনুপ্রেরণা যোগায়।

যেমন ভাবা, তেমন কাজ। আইডিয়াটা বলামাত্র জাহিদও হুজুগে তাল দিলো। রুবাইয়াতের ছোট ভাই আফশিনকেও দলে টানা হল। এই তিন প্রতিভাধর আঁকিয়ে হই-হই করে আঁকতে শুরু করল। বলা সহজ, কিন্তু আঁকা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। অনেকের মতামতের উপরে ভিত্তি করে, বেশ কয়েকটা ইটারেশনের পরে অবশেষে আঁকা শেষ হল।

arushi.jpg

আরুশির দেয়ালে আমাদের প্রথম পোস্টার

ইতিমধ্যে আঁকিয়েদের সাথে বাতায়ন ফাউন্ডেশন এর ইশতিয়াক এর সাথে আলাপ হলো, বিশেষত, বর্ণমালা ড্রয়িং গুলো কি করে মানুষের হাতে পৌঁছে দেয়া যায় (প্রবাসী বাঙালি থেকে শুরু করে বাংলাদেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশু পর্যন্ত)। ওয়েবসাইট, ই-কমার্স পোর্টাল, পেমেন্ট গেটওয়ে সেটআপ, ও এইগুলার তদারকিতে সাহায্য করছে আশিক।  আর, রাজন ছবিগুলো থেকে সর্বশেষ পোস্টার ডিজাইন করতে সাহায্য করেছে। এই সকলের স্বেচ্ছাসেবায় প্রস্তুত "ছবিতে বাংলা বর্ণমালা"।   

বিস্তারিত পেছনের গল্প পড়ুন রুবাইয়াতের ব্লগে।